ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশের

খেলাধুলা

শেষ ম্যাচেও দুর্দান্ত জয় তুলে নিল বাংলাদেশ। ব্যাটে-বলে কোনোখানেই পাত্তা পেল না ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সোমবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১২০ রানে হারাল টাইগাররা। যার ফলে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৬ উইকেটে ও দ্বিতীয় ম্যাচে ৭ উইকেটে জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ।

এদিন বাংলাদেশের দেয়া ২৯৮ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ওভারে ৪৪.২ ওভারে ১৭৭ রান করে অলআউট হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন রভম্যান পাওয়েল। বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ৩টি, মোস্তাফিজুর রহমান ২টি, মেহেদী হাসান মিরাজ ২টি, তাসকিন আহমেদ ১টি ও সৌম্য সরকার ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

ইনিংসের শুরুতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ওপেনারকে সাজঘরে পাঠায় বাংলাদেশ। দুইটি উইকেটই নেন মোস্তাফিজ। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন ওটলি। ৮ বলে ১ রান করেন তিনি। ষষ্ঠ ওভারে এলবিডব্লিউ হন সুনিল আমব্রিস। ১৪ বলে ১৩ রান করেন তিনি।

১৩তম ওভারে কাইল মায়ার্সকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেরেন মিরাজ। সফরকারীদের দলীয় রান যখন ৭৯ তখন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক জেসন মোহাম্মদকে ফেরান সাইফউদ্দিন। ৩৬ বলে ১৭ রান করে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন তিনি। ২৬তম ওভারে নিজের দ্বিতীয় শিকার করেন সাইফউদ্দিন। বোনারকে বোল্ড করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরান তিনি। ৬৬ বলে ৩১ রান করেন বোনার।

দলীয় ৯৩ রানে ৫টি উইকেট হারানোর পর পাওয়েল ও রেইফার প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করলেও তাদের সফল হতে দেননি বাংলাদেশের বোলাররা। শেষমেশ ১৭৭ রানে তারা অলআউট হয়ে যায়।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ২৯৭ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে চারজন ব্যাটসম্যান হাফ সেঞ্চুরি করেন। তামিম ইকবাল ৬৪, মুশফিকুর রহিম ৬৪ ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৬৪ রান করেন। ৫১ রান করেন সাকিব আল হাসান।

হাফ সেঞ্চুরি করার পথে অনন্য এক বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন সাকিব। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিন ফরম্যাট মিলিয়ে যেকোনো এক দেশের মাটিতে ৬ হাজারের বেশি রান ও ৩০০ উইকেটের রেকর্ডের মালিক শুধুই সাকিব। বিশ্বের আর কোনো ক্রিকেটারের এই রেকর্ড নেই। সাকিব এই রেকর্ড গড়েছেন নিজ দেশের মাটিতে।

ভারতের ১৯৮৩ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব ভারতের মাটিতে তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ৪ হাজারের বেশি রান ও ৩০০ উইকেট শিকার করেছেন।

তামিম ইকবালও একটি রেকর্ড গড়েছেন। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসাবে ওয়ানডেতে ৫০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তামিম। এই ম্যাচে মাঠে নামার আগে চট্টগ্রামের তামিমের রান ছিল ৪৯৭। এই ভেন্যুতে এখন পর্যন্ত ১৫টি ওয়ানডে খেলে ৫৬১ করেছেন তামিম।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের মধ্যে আলহারি যোসেফ ২টি, কাইল মায়ার্স ২টি ও রেমন রেইফার ২টি করে উইকেট নেন। ম্যাচসেরা হয়েছেন মুশফিকুর রহিম ও সিরিজ সেরা হয়েছেন সাকিব আল হাসান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *