ব্যস্ত সময় পার করছেন মারকাজুল খাইরীর ‘লাশ গোসলখানা’র কর্মীরা

ফিচার সংবাদ

ভয়েস টাইমস:দিন দিন করোনার ভয়াবহতা বেড়েই চলছে।মরণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিনই মারা যাচ্ছেন শতশত মানুষ।সংক্রমণের ভয়ে ঠিকঠাক মতো লাশের গোসল ও দাফনের কাজে অবহেলার চিত্রও দেখতে হচ্ছে। কোথাও কোথাও অযত্নে পড়ে থাকে করোনা রোগীর লাশ।পাড়া-প্রতিবেশী ও স্বজনরা পর্যন্ত মৃতের কাছে আসে না।মানবতার ভয়াল বিপর্যয়ের এমন কঠিন পরিস্থিতিতে করোনা আক্রান্তে মৃতদের লাশ গোসল দিয়ে অনন্য ভূমিকা রাখছে ‘মারকাজুল খাইরী আল-ইসলামী’।

আর্ত মানবতার সেবার লক্ষ্যে গণমানুষের প্রয়োজনে ‘মারকাজুল খাইরী আল-ইসলামী’ নামে সেবামূলক সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন প্রিন্সিপাল আল্লামা হাবীবুর রহমান রহ.। এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সাধারণ মানুষ বিনামূল্যে মুসলিমরীতিতে মৃতদেহের দাফন-কাফন, অ্যাম্বুলেন্স সেবা ও অর্থিক সেবাসহ বিভিন্ন  সামজিক সহায়তা পেয়ে থাকে।
জামেয়া মাদানিয়া ইসলামিয়া কাজিরবাজার সিলেটের তত্ত্বাবধানে ‘মারকাজুল খাইরী আল ইসলামী’ পরিচালিত হচ্ছে।করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে সিলেটেও মৃত্যুর মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে। প্রতিদিনই মারা যাচ্ছেন করোনা আক্রান্ত হওয়া রোগী।এসব মৃতের উল্লেখযোগ্য মরদেহ মারকাজুল খাইরী আল ইসলামীর ‘লাশ গোসলখানায়’ সুন্নাহ সম্মত পদ্ধতিতে ধৌত করছেন স্বেচ্ছাসেবকরা।মহামারীর এই সময়ে স্বেচ্ছাসেবকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন।

মারকাজুল খাইরী আল ইসলামীর মহাপরিচালক ও কাজির বাজার মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা সামিউর রহমান মুছা জানিয়েছেন- ‘আমরা এখন পর্যন্ত ২৫ জনের মতো করোনায় মারা যাওয়া লাশের গোসল করিয়েছি। আমাদের নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে লাশের গোসল করান। গত কয়েক দিনে লাশের সংখ্যা বেড়ে গেছে। গত বৃহস্পতিবার রাতেও করোনায় মারা যাওয়া দুই লাশের গোসল করানো হয় ’

মারকাজুল খাইরী আল ইসলামীর যুগ্ম মহাসচিব তারিক বিন হাবীব জানান- ‘ সকাল, দুপুর, মধ্যরাত কিংবা শেষ রাত। জামেয়া মাদানিয়া মানবতার খেদমতে সর্বদা নিয়োজিত আছে। ইদানিং লাশের সংখ্যা বেড়ে গেছে। চারিদিকে যেনো মৃত্যুর মিছিল। জামেয়া মাদানিয়ার লাশঘরটি শুরু থেকেই করোনা রোগীদের গোসলের জন্য উন্মুক্ত। আছে স্বেচ্ছাসেবকরা। করোনায় যখন সবার দরোজা বন্ধ ছিল তখনও খোলা ছিল কাজিরবাজার মাদ্রাসার লাশঘর। মানবতার ডাকে সাড়া দিয়ে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ করোনায় মারা যাওয়া লাশের গোসল করানোর ব্যবস্থাপনা অব্যাহত রাখবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *