মুসা আল হাফিজের কবিতা “তুমি খোদা নও”

শিল্প ও সাহিত্য

তুমি খোদা নও!


গতকাল দুনিয়াকে খেতে সবকিছু তামাতামা করেছো

আজ দুনিয়া তোমাকে খেয়ে দিচ্ছে!

সীমান্তে সীমান্তে ভাষা ও বর্ণে,ধর্মে

ছড়িয়েছো বিষদ্বেষী ‘আমরা’ ও ‘তারা’

আজ করোনার লালপ্রস্রাব ঢুকে যাচ্ছে

সকল ভাষা ও বর্ণের নাকে মুখে!

প্রেম ও স্বাধীনতার পাসপোর্ট নিয়ে যত ঝামেলা

ভাইরাস এখন ভিসা ছাড়াই দুনিয়া দাপাচ্ছে!

পড়ে আছে নিউক্লিয়ার ওয়েপন

দুঃখগাছের পাতার মত রাগী ও করুণ সন্ধ্যার মুখের উপর

বাদুড়ের ডানা ঝাড়া দেখছি!

মানুষ তো মড়ক হয়ে বসে আছে বাসে

বাস যেখানেই যায়- সব ক’টি স্টেশনেই

গণকবরের তৈয়ারি চলছে!

মানুষ কোথায় যাবে আজ?

যে মানুষ মানুষের কাছে যেতে অনীহ ভীষণ!

মানুষ কোথায় যাবে আজ?

যে মানুষ নিজের নিকটে যেতে এখনো নারাজ!

মানুষ কোথায় যাবে আজ?

যে মানুষ প্রকৃতির কাছ থেকে পেতেছে তালাক!

কোথায় যাবে হে মানুষ! ঠিকানা কোথায়?

রাতকে কোয়ারেন্টাইনে রেখেও রক্ষে নেই

অপেক্ষা চলছে কীটের!

দিনকে লকডাউন করেও স্বস্তি নেই

সময়টাই সময়ের জানাজাবিহীন লাশ!

মাটির সকল স্তরে আশ্রয়ের বিপরীত সুর!

কথা বলছে না কোনো দম্ভ

কোনো বিজ্ঞান,প্রযুক্তি কিংবা শিল্প,উন্নয়ন

কেবলই অক্ষমতা কথা বলছে-

যেনো বুঝো-

তুমি আমেরিকা,চীন,রাশিয়া,ইউরোপ যাই হও-

তুমি খোদা নও, তুমি খোদা নও, তুমি খোদা নও!