রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিল করার ষড়যন্ত্র জনগণ সহ্য করবে না: ছাত্র মজলিস কেন্দ্রীয় সভাপতি

সংগঠন

ভয়েসটাইমস: বাংলাদেশের সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলামকে মুছে ফেলার জন্য অশোক কুমার সাহার এই ঘৃণ্য পদক্ষেপের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় সভাপতি তারিক বিন হাবীব।

আজ (১৮ আগস্ট) এক বিবৃতিতে কেন্দ্রীয় সভাপতি বলেন, সংবিধানের ২(ক) নম্বর অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, তবে অন্যান্য ধর্মও প্রজাতন্ত্রে শান্তিতে পালন করা যাইবে।’ বাংলাদেশের অধিকাংশ লোক ইসলাম ধর্মের অনুসারী। সে অনুযায়ী রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম হওয়া যুক্তিসংগত। তাছাড়া, এখানে অন্যান্য ধর্মাবলম্বী স্বাধীনভাবে তাদের ধর্ম পালন করবে তা স্পষ্ট ভাবেই বলা হয়েছে, যুগ যুগ থেকে আমরা তা দেখেও আসছি। কোন সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছাড়া দেশের মানুষ শান্তভাবেই বসবাস করে আসছে। এমনকি, মুসলমানরা মানবপ্রাচীর তৈরি করেও মন্দিরের রক্ষা করেছে, এরকম দৃষ্টান্ত পৃথিবীর অন্যান্য দেশে খুঁজে পাওয়া খুবই কষ্টসাধ্য। এমতাবস্থায় রাষ্ট্রধর্ম মুছে ফেলার নামে কেউ কেউ দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর পায়তারা করছে। তাই তিনি সংশ্লিষ্ট সবাইকে এব্যাপারে সজাগ থাকার অনুরোধ জানান।

কেন্দ্রীয় সভাপতি হুশিয়ারি বাক্য উচ্চারণ করে বলেন, রাষ্ট্রধর্ম ইসলামকে মুছে ফেলার কোন ষড়যন্ত্র করলে ধর্মপ্রাণ মুসলমান নিজের জীবন বিলিয়ে দিয়ে হলেও এ ঘৃণ্য ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন হতে দিবে না।