সিলেটে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা: গ্রেফতার ১

সারাদেশ

সিলেটে আবারো ডবল মার্ডারের মতো নৃশংস ঘটনা ঘটেছে। পারিবারিক বিরোধের জের ধরে সদর উপজেলার শাহপরাণ বিআইডিসি এলাকার মীর মহল্লায় মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা করেছে সৎ ছেলে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছে নিহতের শিশু পুত্র।

বৃহস্পতিবার দিবাগত মধ্যরাতে এই মর্মান্তিক নৃশংস জোড়া খুনের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, রুবিয়া বেগম (৩০) ও তার মেয়ে মাহা (৯)।

গুরুতর আহত অবস্থায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছে নিহত রাজিয়া বেগমের শিশু পুত্র তাহসান (৭)।

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, নিহত মা-মেয়ে ও আহত শিশুর দেহে ধারালো অস্ত্রের অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। গুরুতর আহত শিশু তাহসানকে বাঁচাতে প্রাণান্তর চেষ্টা চলছে। তার দেহে জরুরীভাবে অস্ত্রোপচার করা হচ্ছে।

এদিকে শাহপরান (রহ.) থানায় ওসি সৈয়দ আনিসুর রহমান জানান, ঘটনার পরপরই রুবিয়ার সৎ ছেলে ঘাতক মাহবুব হোসেন আবাব (২২) কে আটক করা হয়েছে। সে সিলেটের বিয়ানীবাজারের আবদাল হোসেন বুলবুলের ছেলে।

তিনি বলেন, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে মাহবুব তার সৎ মা ও ভাই-বোনকে দা দিয়ে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে খুন করে। এরপর ঘরে খাটে তুষকে আগুন ধরিয়ে বাহির থেকে দরজা বন্ধ করে দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত মা-মেয়ের মরদেহ ও গুরুতর অবস্থায় একটি শিশুকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মরদেহগুলো উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ওসমানী হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।তাদের সমস্ত দেহে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে সিলেটে মহানগর পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) সুহেল রেজা, শাহপরান থানার সহকারী পুলিশ কমিশনার ময়নুল আফসারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *